নতুনভাবে এমপিওভুক্ত করতে emis/ memis cell এর জটিলতা; সংশোধন করতে অনুরোধ জানিয়েছেন নিবন্ধিত সুপারিশ প্রার্থীরা। - lokkotha.com- দৈনিক লোককথা
ঢাকামঙ্গলবার , ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১
  1. আন্তর্জাতিক
  2. ইসলাম
  3. কবিতা
  4. করোনা আপডেট
  5. খবর
  6. চাকরি
  7. পড়ালেখা
  8. প্রবাসের খবর
  9. বিনোদন
  10. মতামত
  11. রাজনীতি
  12. লাইফ স্টাইল
  13. শিক্ষা
  14. সম্পাদকীয় কলাম

নতুনভাবে এমপিওভুক্ত করতে emis/ memis cell এর জটিলতা; সংশোধন করতে অনুরোধ জানিয়েছেন নিবন্ধিত সুপারিশ প্রার্থীরা।

প্রতিবেদক
Lokkotha(লোককথা)
সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২১ ১১:১২ পূর্বাহ্ণ

Spread the love

নতুন এমপিওভুক্তির জন্য নীতিমালা জটিল থেকে জটিলতর হচ্ছে!

এমপিওভুক্ত একটা জটিল সিস্টেম। পৃথিবীতে এর চেয়েও জটিল সিস্টেম আছে বলে মনে হয় না। নতুনভাবে যারা এমপিওভুক্ত পদ থেকে অন্য প্রতিষ্ঠানে সুপারিশ পেয়েছেন তাদের জন্য বিষয়টা অনেকটা, জিলাপির প্যাঁচ এর মতো হচ্ছে। কেন এমন এনালগ সিস্টেম এই ডিজিটাল যুগে,যেখানে সব কিছু অনলাইন নির্ভর এবং অন্যান্য আইনগত ব্যবস্থা খুব গোছানো সেখানে এমপিওভুক্ত যেন মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা এর মতো।

emis/ memis cell এর জটিলতা কি কখনো শেষ হবে না?

 

Updated EMIS সেলের তিনটা বড় সমস্যা তুলে ধরলাম।আশা করি সমাধান করবেন।

 

সমস্যা নং ১.

ইনডেক্সধারী শিক্ষকগণ একটা স্কুল থেকে আরেকটা স্কুলে অথবা একটা কলেজ থেকে আরেকটা কলেজে যেতে হলে তাকে এক এমপিওতে আগের স্কুল/কলেজ থেকে প্রথমে রিলিজ নিতে হবে। তারপর আরেক এমপিওতে নতুন স্কুল/কলেজ থেকে ট্রান্সফার আবেদন করতে হবে।

পুরো প্রক্রিয়টা এক এমপিওতে করলে ভালো হত এবং আগে এক এমপিওতেই ছিল।

এখন সমস্যা যেটা, সেটা হল কেউ যদি পূর্বের প্রতিষ্ঠান থেকে রিলিজ নিয়ে নেয় এবং নতুন প্রতিষ্ঠানে যাওয়ার পরে যদি কোন কারণে ওই পদে এমপিও না হয় বা ঐ পদের এমপিও প্রাপ্তি না থাকে তাহলে এই লোকের যে আগের স্কুল / কলেজ এর এমপিও শীট থেকে নামটা কর্তন/রিলিজ করে ফেলা হলো তাহলে তার কি হবে?

 

একদিকে আগের প্রতিষ্ঠানের এমপিও শীট হতে তার নাম কেটে দেওয়া হল আরেকদিকে নতুন প্রতিষ্ঠানে এমপিও প্রাপ্তি না থাকায় তার এমপি হচ্ছেনা।

তাহলে ঐ লোক কোথায় যাবে?

 

অনুরোধঃ

এক আবেদনে পুরো প্রক্রিয়া শেষ করার ব্যবস্থা করুন।

আগের পদ্ধতি ভালো ছিলো।ট্রান্সফার আবেদন করতে শুধু ইনডেক্স নাম্বার দিলেই সব তথ্য চলে আসতো।

সেই পদ্ধতি চালু করুন।

 

সমস্যা নং২.

 

নতুন নিয়োগপ্রাপ্তদের নতুন এমপিও আবেদনের জন্য প্রথমে রেজিস্ট্রেশন করতে হয়। এরপর এমপিও আবেদন করতে হয়।

কোন কারণে ঐ প্রতিষ্ঠানে তার এমপিও না হলে এই রেজিষ্ট্রেশন ডিলিট করা যায় না বা ডিলিট করার কোন অপশন নেই।

রেজিষ্ট্রেশন থেকে যাওয়ার ফলে এই লোক অন্য কোন প্রতিষ্ঠানে নিয়োগ পেলেও এমপিও আবেদন করার জন্য নতুন প্রতিষ্ঠানে রেজিষ্ট্রেশন করতে পারে না। কারণ যেহেতু তার এনআইডি নং দিয়ে একটা রেজিষ্ট্রেশন করা আছে। তাই নতুন রেজিষ্ট্রেশন নেয় না।

 

অনুরোধঃ

রেজিষ্ট্রেশন ডিলিট করার অপশন চালু করুন।

 

সমস্যা নং ৩.

এমপিও নীতিমালা ২০২১ এর ১১.১৫ ধারা অনুযায়ী মাদ্রাসার শিক্ষকগন স্কুল/কলেজে ও স্কুল/কলেজের শিক্ষকগন মাদ্রাসায় সমপদে/সমস্কেলে আসতে পারবেন এবং তাদের অভিজ্ঞতা ও জ্যেষ্ঠতা বজায় থাজবে।

কিন্তু Emis সেলের সাথে Memis সেলের কোন সম্পর্ক না থাকায় তাদের ইনডেক্স ট্রান্সফার করা যায় না।

 

অনুরোধঃ

উভয় সেলের সাথে সমন্বয় সাধন করুন। যাতে মাদ্রাসা থেকে স্কুল/কলেজে আসলে বা স্কুল/কলেজ থেকে মাদ্রাসায় গেলে ট্রান্সফার আবেদনের জন্য ইনডেক্স নং দিলেই একটা সেলের তথ্য অন্য সেলে পাওয়া যায়।

সর্বশেষ - খবর

আপনার জন্য নির্বাচিত

বেসরকারি মাধ্যমিক শিক্ষকদের বদলী বাস্তবায়নে এটিই সুযোগ

আসন্য আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সলপ ইউনিয়নের নৌকার মাঝি হতে চান জনাব আসাদুজ্জামান (লিন্টু) সাহেব।

মার্কিন ও ন্যাটো বাহিনী আফগানিস্তানের বাগরাম বিমান ঘাঁটি ত্যাগ করেছে

পদ্মা নদীতে পড়ে গিয়ে চীনা প্রকৌশলী নিখোঁজ

লিবিয়ার আটক শিবিরে কয়েকশ বাংলাদেশি আটক

ওমর ফারুক হত্যার বিচারের দাবিতে কওমী ছাত্র ফোরামের মানববন্ধন

১৮ লাখ টাকা ব্যয়ে দুটি চাকরিতে নিয়োগ।

ইরানি রাষ্ট্রপতি ক্ষমতা গ্রহণের জন্য বড় ধাক্কা!

বাংলাদেশী ভারতীয়দের একটি সুইস ব্যাংকে কত টাকা আছে

বাংলাদেশী ভারতীয়দের একটি সুইস ব্যাংকে কত টাকা আছে

যুক্তরাষ্ট্রে জিয়া রহমানের নামে একটি রাস্তা খোলা হলো