ইসলামের দাওয়াতি কাজ নিয়ে পত্রিকাগুলোর এলার্জি - lokkotha.com- দৈনিক লোককথা
ঢাকাবুধবার , ১৪ জুলাই ২০২১
  1. আন্তর্জাতিক
  2. ইসলাম
  3. কবিতা
  4. করোনা আপডেট
  5. খবর
  6. চাকরি
  7. পড়ালেখা
  8. প্রবাসের খবর
  9. বিনোদন
  10. মতামত
  11. রাজনীতি
  12. লাইফ স্টাইল
  13. শিক্ষা
  14. সম্পাদকীয় কলাম

ইসলামের দাওয়াতি কাজ নিয়ে পত্রিকাগুলোর এলার্জি

প্রতিবেদক
Lokkotha(লোককথা)
জুলাই ১৪, ২০২১ ৫:২১ অপরাহ্ণ

Spread the love

Ali Ahmad Mabrur

পত্রিকাগুলো বাংলাদেশের রাজনৈতিক ডিসকোর্সের ভাষা তৈরি করে দেয় অনেকদিন ধরেই। আমরা যারা ইসলামী আন্দোলনের একটি অভিজ্ঞতায় বড়ো হয়েছি তারা হাড়ে হাড়ে বিষয়টি অনুভব করেছি শৈশব থেকেই। আমাদের বাবা-চাচাদের রুটিন ডিউটি ছিল প্রতিদিনের মিডিয়া প্রোপাগান্ডার জবাব দেয়া। অভিযোগের দায় অস্বীকার করা কিংবা নিজেদের অবস্থান ব্যাখ্যা করা।একটা সময়ে এ কাজটি হয়েছে আজকের কাগজ দিয়ে, পরবর্তীতে ভোরের কাগজ, এরপর জনকন্ঠ আর এখন এদের ধরাশায়ী হওয়ার পর মেইনস্ট্রিম পত্রিকাগুলোই সেইম এজেন্ডা বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে। ২০১১-১৩ সালে তো মনে হতো শুধু রাজনৈতিক নয়, বরং আইনের অনেক ডিসকোর্সও এভাবে তৈরি হয়।আজকের সময়ে এসে প্রথম আলো যখন একটি বিষয়কে নিয়ে নেতিবাচক ক্যাম্পেইন করে, তার প্রভাব খুব বেশি হয়। কারণ উপরে যতগুলো পত্রিকার নাম বললাম, তার চেয়ে প্রথম আলো অনেক বেশি জনবান্ধব। বহুমানুষের বাসার পত্রিকা, ড্রইংরুমের শোভা এ পত্রিকাটি। অনলাইনে পাঠক সংখ্যাও আকাশ ছোঁয়া। তাই এ পত্রিকার খবর খুব সহজে ইগনোর করার মতো বিষয়ও নয়।যা কিছু ভালো তার সাথে প্রথম আলো- এটা নিছক একটি ট্যাগলাইন নয়। ঠান্ডা মাথায় চিন্তা করলে বুঝতে পারবেন, আপনার ভালো ও মন্দের ডেফিনেশনও তারা নির্ধারন করে দিচ্ছে। তাই তাদের ভালো-মন্দের সংজ্ঞায়নের ক্রাইটেরিয়া বোঝা আমাদের জন্য জরুরি।বাংলাদেশের টেরিটরির ভেতরে খৃস্টান মিশনারী কাজ করলে যদি তা দোষনীয় না হয়, তাহলে ইসলামের দাওয়াতী কাজ কেন দোষনীয় হবে? কেন তা উগ্র কাজ হিসেবে চিহ্নিত হবে? খুব জানতে ইচ্ছা করে, মাওলানা গুনবি না হয়ে যদি আরো লিবারেল কেউ গিয়েও দাঈ ইলাল্লাহ’র কাজ করতো, তার গায়েও কি উগ্র তকমাটা লাগতো না? দুর্গাপুজার মেকআপ বা গেটআপের ছবি প্রকাশে যদি সাম্প্রদায়িকতা প্রমাণ না হয়, তাহলে রোজা নিয়ে ধর্মীয় আলোচনা বা ডিটেইলে কাজ কেন সাম্প্রদায়িক হিসেবে বিবেচিত হবে? সমস্যা যে ইসলামকে নিয়েই হচ্ছে, বা ইসলামের কারণেই হচ্ছে- এ সত্য বচনটি বারবার বলা প্রয়োজন।মিডিয়ার এই রূপ এবং দ্ব্যর্থক চেহারাগুলো সামনে আনা যেমন প্রয়োজন ঠিক তেমনি কাউন্টাির মিডিয়া এবং কাউন্টার বয়াণ তৈরির কোনো বিকল্প নেই। মেইনস্ট্রিম ইসলামকে সামনে আনা খুব জরুরি। ইসলামে কোনো উগ্রতা নেই, কঠোরতা নেই। কোনো মিডিয়া এভাবে ইসলামকে চিত্রায়িত করলেই মুসলিম হিসেবে আমাদের তা মেনে নেয়ার সুযোগ নেই। ইসলামকে বিকৃতরূপে উপস্থাপন করা যেমন অন্যায় তেমনি ইসলামের বিষয়ে একচোখা নীতি পোষণ করা আরো বড়ো অন্যায়।

সর্বশেষ - খবর

আপনার জন্য নির্বাচিত

দরিদ্র লোকেরা বিনামূল্যে করোনার পরীক্ষা করতে পারবে

NTRCA (১-১২তম) সকল নিবন্ধনধারীর প্যানেলভিত্তিক নিয়োগ দাবি !

জেলা প্রশাসক বাচ্চাদের জড়িয়ে ধরে বিদায় জানাতে কাঁদলেন।

কানাডার পর্দা পরে মুসলিমদের সাথে অমুসলিমদের সংহতি

বাইডেনের নির্দেশে আমেরিকা ইরাক ও সিরিয়ায় বিমান হামলা চালালেন, মারা গেছেন ৫ জন

মৃত্যুবরণ করলেন ৫০ বছর ধরে নববীতে নামাজ আদায়কারী বৃদ্ধ

বাংলাদেশীসহ ৪৩ জন অভিবাসী ভূমধ্যসাগরে ডুবেছিল

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীকে ৫০,০০০ টাকার নকল নোট সহ গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

খাল ইস্তাম্বুল: এরদোগানের স্বপ্নের প্রকল্প চলছে।

মগবাজার ঘটনার জন্য সরকারকে অবশ্যই দায় নিতে হবে: এমপি হারুন